রোজায় হৃদ্‌রোগীদের করণীয়

দেবীগঞ্জ সংবাদ ডেস্ক
আপডেটঃ ২২ এপ্রিল, ২০২২ | ১১:৩৫ 200 ভিউ
দেবীগঞ্জ সংবাদ ডেস্ক
আপডেটঃ ২২ এপ্রিল, ২০২২ | ১১:৩৫ 200 ভিউ
Link Copied!

রোজার সময় মানুষের খাদ্যাভ্যাস, ব্যায়ম, ওষুধ গ্রহণের সময়সূচি, ঘুমের সময় ও পরিমাণ পরিবর্তিত হয়। একজন সুস্থ স্বাভাবিক পূর্ণবয়স্ক মানুষ যেভাবে এই পরিবর্তনের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে পারেন, তা একজন অসুস্থ মানুষ বা হৃদ্‌রোগীর পক্ষে সম্ভব হয়ে ওঠে না। তাই তাঁদের চাই সতর্কতা।

হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত রোগীদের অনেকের ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, অ্যাজমা ইত্যাদিও থাকে। তাই রোজার সময় খাদ্যাভ্যাস ও ওষুধপথ্য নতুন করে সময়োপযোগী করে নিতে হয়।

 

রণীয়

  • যেসব হৃদ্‌রোগীর হার্টের পাম্পিং ক্ষমতা স্বাভাবিক, তাঁরা অন্য সবার মতো রোজা রাখতে পারবেন।
  • হৃদ্‌রোগীদের বেশির ভাগ ওষুধ দিনে একবার বা দুবার খেলেই হয়। যেসব ওষুধ দিনে একবার খেলে চলে, রোজার সময় সেগুলো রাতের খাবারের সময় নিলেই চলবে।
  • যেসব ওষুধ দিনে দুবার খেতে হবে, সেগুলো ইফতার ও সাহ্‌রির সময় খেলে চলবে। খেয়াল রাখতে হবে যেন দুই ডোজের মধ্যবর্তী সময়টি সংক্ষিপ্ত না হয়। বিশেষ করে রক্তচাপের ওষুধ পর্যাপ্ত ফারাক দিয়ে সেবন করতে হবে। রোজার সময় খাদ্য ও পানির পরিমাণ কমে যাওয়ায় রক্তচাপ কমে যেতে পারে। সে ক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শে মাত্রা কমানো যেতে পারে।
  • হৃদ্‌রোগের কিছু কিছু ওষুধ (যেমন Nitrate) সকালে ও বিকেলে খেতে হয়, রোজায় সেগুলো সাহ্‌রি ও ইফতারের সময় সমন্বয় করা যায়। কিছু ওষুধ দিনে তিনবার নিতে হয়, সেগুলো স্লো রিলিজ ফর্মে দিনে একবার বা দুইবারে খাওয়া যায়।
  • হৃদ্‌রোগীদের মধ্যে যাঁদের ডায়াবেটিস আছে, তাঁদের বিশেষ সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। দিনের দীর্ঘ সময় খাদ্য ও পানীয় গ্রহণ না করায় রক্তে সুগারের পরিমাণ মারাত্মকভাবে কমে যেতে পারে। হঠাৎ জ্ঞান হারিয়ে ফেললে বা মাথা ঝিমঝিম করলে, বুক ধড়ফড় করে প্রচুর ঘাম দিলে সুগারের মাত্রা কমে যেতে পারে বলে সন্দেহ করতে হবে এবং তত্ক্ষণাৎ সুগার পরীক্ষা করা সম্ভব হলে করতে হবে। ডায়াবেটিস বিশেষজ্ঞের সঙ্গে পরামর্শ করে ওষুধ ও ইনসুলিনের মাত্রা ঠিক করতে হবে।
  • রোজার সময় যেসব ওষুধ দ্রুত রক্তের সুগার কমায় তা এড়িয়ে চলা উত্তম। ইনসুলিনের ব্যাপারে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

 

খাবারদাবার


  • তৈলাক্ত, ভাজাপোড়া খাদ্য (যেমন পেঁয়াজু, বেগুনি, কাবাব, পরোটা, হালিম ইত্যাদি) এড়িয়ে চলা উচিত।
  • ভেজানো চিড়া, কাঁচা ছোলা বা তেলমুক্ত সেদ্ধ ছোলা, খেজুর, কলা, দই এসব দিয়ে ইফতার করা যেতে পারে। পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি, লেবুর শরবত, রসাল ফল, ডাবের পানি, কমলার রস ইত্যাদি শরীরের জন্য ভালো।
  • ইফতার পরিমিত পরিমাণে হতে হবে। হঠাৎ অতিরিক্ত ইফতার করলে হিতে বিপরীত হতে পারে। পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি বা পানীয় গ্রহণ করতে হবে, যাতে দিনের পানিশূন্যতা

 

ডা. মাহবুবর রহমান, সিনিয়র কার্ডিওলজিস্ট ও সিসিইউ ইনচার্জ, ল্যাবএইড কার্ডিয়াক হাসপাতাল, ধানমন্ডি, ঢাকা

ট্যাগ:

শীর্ষ সংবাদ:
ট্যাংক ধ্বংস করলেই মিলবে ৭৫ লাখ টাকা পুরস্কার! ফেসবুক লাইভে এসে মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে ব্যবসায়ীর আত্মহত্যা দেবীগঞ্জে ইকরা মডেল মাদ্রাসায় অভিভাবক সমাবেশ অনুষ্ঠিত  পঞ্চগড়ে পুলিশ সার্ভিস এসোসিয়েশনের শীতবস্ত্র বিতরণ ইসরাইলের হামলায় প্রাণ হারালো ৯ ফিলিস্তিনি এক মুরগির দাম ২ লাখ টাকা! দেবীগঞ্জে শেখ কামাল এ্যাথলেটিকস প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত দেবীগঞ্জে কৃষি জমির পাশ থেকে যুবকের মরদেহ উদ্ধার ফেব্রুয়ারির ১৯ তারিখ রাষ্ট্রপতি নির্বাচন : ইসি দেবীগঞ্জে পানি উন্নয়ন বোর্ডের বৈদ্যুতিক হালকা সেচ প্রকল্পের সেচ কার্যক্রম উদ্বোধন  বর টাকা গুনতে না পারায় বিয়ে ভেঙে দিলেন কনে! মটরসাইকেলে ‘বন্ধুর’ সঙ্গে ঘুরতে গিয়ে প্রাণ গেল বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর ফ্রি-ফায়ার খেলার সময় ট্রেনে কাটা পড়ে যুবকের মৃত্যু নিউজিল্যান্ডের নতুন প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন ক্রিস হিপকিনস যে কারণে পিটিআই প্রধানের পদ ছাড়ছেন ইমরান খান পঞ্চগড়ে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে অর্ধ সহস্রাধিক শীতার্তের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ রোহিঙ্গা ক্যাম্প একসময় আমাদের জন্য বিষফোঁড়া হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শৃঙ্খলার পাশাপাশি সবুজের নান্দনিকতায় ফিরেছে দেবীগঞ্জ ভূমি অফিস দেবীগঞ্জে ভোক্তার অভিযান; তিন প্রতিষ্ঠানকে অর্থদণ্ড স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে হাইকোর্টে তলব